শিরোনামঃ
কক্সবাজারে সেনা টহল জোরদার:সেনাবাহিনীর আহ্বানে সাধারণ মানুষের অভূতপূর্ব সাড়ানিজ বেতনের অর্থে অসহায় ৫ শ পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন কউক চেয়ারম্যানকক্সবাজারেমাঠে নেমেছে সেনাবাহিনীকক্সবাজার সী-সাইড হাসপাতালে ৫০ হাজার টাকা জরিমানাকক্সবাজারে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা কাজী রাসেল মহিলাসহ আটকআটকের ১৪ দিনেও থানা হাজতে টমটম চালক আয়ুবঃ ক্রসফায়ারের নামে টাকা আদায়ের অভিযোগটেকনাফ সীমান্তে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মানব পাচারকারী নিহতমহান শহীদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস আজআগামী দেড় মাসের মধ্যে কক্সবাজার শহরেরর প্রধান সড়কের কাজ শুরু করা হবে-লে: কর্নেল (অব.) ফোরকান আহমদহ্নীলায় অবৈধভাবে মাটি পাচারের ৬টি ডাম্পার ট্রাক জব্দশিক্ষায় আলোকিত মানুষেরাই যুগযুগ ধরে বেঁচে থাকে-লে.কর্ণেল ফোরকান আহমদ”বিদেশি পর্যটকদের নিকট সৈকতকে তুলে ধরতে”ওয়েলকাম টু সার্ফিং সিটি”ভাস্কর্য স্থাপন করা হবে”টেকনাফে র‍্যাবের অভিযানে ইয়াবাসহ জালাল আটকটেকনাফে র‌্যাবের অভিযানে ইয়াবা কোহিনুর আটকউখিয়ায় বিজিবি’র সঙ্গে‘বন্দুকযুদ্ধে’ইয়াবাকারবারি নিহত
porno izle izmir escort sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam inönü üniversitesi taban puanları

আগামী দেড় মাসের মধ্যে কক্সবাজার শহরেরর প্রধান সড়কের কাজ শুরু করা হবে-লে: কর্নেল (অব.) ফোরকান আহমদ

FB_IMG_1582201696628.jpg

প্রেস বিজ্ঞপ্তি::কক্সবাজার শহরের প্রধান সড়কের কাজ শুরু করতে সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের প্রধানদের সাথে সম্বনয় সভা করেছে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ। এতে সভাপতিত্ব করেন কউক চেয়ারম্যান লে.কর্ণেল (অব.) ফোরকান আহমদ এলডিএমসি পিএসসি। গত ১৯ ফেব্রুয়ারী সকাল সাড়ে ১১ টায় কউকের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। এসময় প্রধান সড়কের পুরোপুরি ডিজাইন, বাস্তবচিত্র, ড্রেনেজ ব্যবস্থা ইত্যাদি বিদ্যুতের খুঁটি সরানোসহ নানা বিষয়ে আলোচনা করা হয়।
সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, পর্যটন নগরী কক্সবাজারের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক হলিডে মোড়-বাজারঘাটা-লারপাড়া (বাস স্ট্যান্ড) সড়কটি। কক্সবাজারে আসা পর্যটক এবং স্থানীয় জনগণ এই রাস্তা দিয়েই চলাফেরা করে। তাই খানাখন্দরে পড়ে থাকা এই সড়ককে সংস্কার করার লক্ষ্যে এই প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে এবং বর্ষা মৌসুমে উক্ত রাস্তার বিভিন্ন জায়গায় ভেঙ্গে যাওয়ায় জনগণের দুর্ভোগের কথা চিন্তা করে ইতোপূর্বে ০৩ বার মেরামত করা হয়। প্রকল্পটি গত ১৬ জুলাই ২০১৯ তারিখ একনেক সভায় অনুমোদন লাভ করে। উক্ত প্রকল্পে নিয়োজিত কনসালটেন্সী প্রতিষ্ঠান কর্তৃক সড়কের ড্রইং, ডিজাইন ইত্যাদি করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, উক্ত প্রকল্প বাস্তবায়ন করার ফলে জনগণের দুর্ভোগ লাঘব হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। অতি শীঘ্রই টেন্ডার প্রক্রিয়া শুরু হবে।
তিনি আরো জানান, ওয়াকওয়ে নির্মাণ, সাইকেলওয়ে নির্মাণ, সবুজায়ন, ফুটওভার ব্রীজ নির্মাণ, সড়ক বাতি স্থাপন (বিদ্যুতায়ন), ফুটপাত নির্মাণ, চসার ড্রেন নির্মাণ, সি.সি ক্যামেরা, ওয়াইফাই সংযোগ সহকারে উক্ত প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হলে একটি মডেল সড়ক নির্মাণ হিসেবে পরিগণিত হবে বলে তিনি দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন। একজন তিনি সকলকে আলোচনায় অংশগ্রহণের জন্য ধন্যবাদ জানান এবং উক্ত প্রকল্প বাস্তবায়নের সহযোগিতা একান্তভাবে প্রত্যাশা করেন।
সভায় কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সদস্য (প্রকৌশল) লে: কর্নেল মোহাম্মদ আনোয়ার উল ইসলাম, কউকের সচিব (উপ সচিব) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্টেট আবু জাফর রাশেদ, সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী, ট্যুরিস্ট পুলিশের এএসপি, জনস্বাস্থ্যের নির্বাহী প্রকৌশলী,বিদ্যুৎ বিভাগের সহকারি প্রকৌশলী, বিজিবির প্রতিনিধি, বনবিভাগের প্রতিনিধি, পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রতিনিধিসহ সরকারি সব দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top