শিরোনামঃ
টেকনাফে“ঘূর্ণিঝড় বুলবুল’মোকাবেলায় সব আশ্রয় কেন্দ্র খোলা রাখার নির্দেশটেক্সটাইল ভোকেশনাল ইন্সটিটিউটের ১যুগ পূর্তি আহ্বায়ক কমিটির অনুমোদনভারত থেকে বাংলাদেশে প্রবেশকালে রোহিঙ্গা তরুণী আটকঈদগাঁওতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে যুবদলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিতচকরিয়ায় ঘর নির্মাণ করতে চাঁদা না দেয়ায় দূর্বৃত্তের হামলায় নিহত-১, নারীসহ আহত-৬, আটক-৩কুতুবদিয়া চ্যানেলের মগনামা পয়েন্টে ৯টি ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবৈধ উপায়ে বালি উত্তোলন করছে এস আলম গ্রæপ!কক্সবাজার সদর খাদ্যগুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ আটক-২কাল লামায় সফরে আসছেন পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুরউখিয়ার ইনানীতে অনিয়ম দুর্নীতি নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিককে প্রাণনাশের হুমকিঝিলংজা ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের ৭১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদনজয়নাল/আরাফাত সিন্ডিকেট গিলে ফেলেছে ইনানীর শত একর পাহাড়লামায় মৎস্য প্রকল্প থেকে ৫ লাখ টাকার মাছ লুটের অভিযোগটেকনাফ পুলিশ-বিজিবি পৃথক অভিযানে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২জন নিহতলামায় এক নারীকে জবাই করে খুনদু’দিন বন্ধ থাকবে কলাতলীর মেরিন ড্রাইভের সংযোগ সড়ক
porno izle izmir escort sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam inönü üniversitesi taban puanları

টেকনাফে দুইদিনে পৃথক বন্দুকযুদ্ধে দুই রোহিঙ্গাসহ ৪ মাদককারবারি নিহত, ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধার

20191018_093845-750x450.jpg

টেকনাফ প্রতিনিধি::কক্সবাজারের টেকনাফে দুইদিনে পুলিশ ও বিজিবির সাথে পৃথম বন্দুকযুদ্ধে দুই রোহিঙ্গাসহ ৪ মাদক কারবারি নিহত হয়েছে। এসময় ঘটনাস্থল হতে ৫০ হাজার ইয়াবা, ১টি অগ্নেয়াস্ত্র ও কিরিচ উদ্ধার করা হয়েছে।
এদিকে, ১৮ অক্টোবর রাত ২টার দিকে উপজেলার হোয়াইক্যংয়ের লম্বাবিলস্থ নাফ নদীর কিনারায় বিজিবির সঙ্গে ইয়াবা পাচারকারীদের সাথে বন্দুকযুদ্ধেও ঘটনা ঘটে।এতে দুই রোহিঙ্গা ইয়াবা পাচারকারী নিহত হয়েছে।
নিহতরা হলেন, উখিয়া উপজেলার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এ/৩ ব্লকের সোলতান আহমদের পুত্র মোঃ আবুল হাশেম (২৫) ও একই ক্যাম্পের সি/১ এর আবু ছিদ্দিকের পুত্র নুর কামাল (১৯) ।
টেকনাফ ২ বিজিবি অধিনায়ক লেঃ কর্নেল মোঃ ফয়সাল হাসান খান জানান, নাফনদীর হোয়াইক্যং ইউনিয়নের লম্বাবিল সীমান্তে মিয়ানমার হতে ইয়াবা পাচারের গোপন সংবাদ পেয়ে বিজিবির একটি বিশেষ টহলদল ওই স্থানে কৌশলগত অবস্থান নেয়। এক পর্যায়ে ৪-৫ জন ইয়াবা পাচারকারী নৌকা যোগে নাফ নদী পেরিয়ে বাংলাদেশের জল সীমার কিনারায় পৌঁছলে বিজিবি জওয়ানরা তাদের চ্যালেঞ্জ করে। এসময় দুই পাচারকারী পালিয়ে গেলে বিজিবি জওয়ানরা তাদের ধাওয়া করে এবং ওঁৎপেতে থাকা ইয়াবা কারবারিরা অতর্কিতভাবে বিজিবির উপর এলোপাতাড়ি গুলি চালায়। এসময় তিন জন বিজিবি সদস্য আহত হন। আত্মরক্ষার্থে বিজিবিও গুলি চালায়।
ঘটনাস্থল তল্লাশী চালিয়ে ২ জন ব্যক্তিকে গুলিবিদ্ধ হয়ে পড়ে থাকতে দেখে বিজিবি সদস্যরা তাদের উদ্ধার করে টেকনাফ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে। সেখানে পৌঁছার পর ডাক্তার তাদের মৃত ঘোষণা করেন।
অপরদিকে,১৭ অক্টোবর ভোরে টেকনাফ থানা পুলিশের সাথে গোলাগুলিতে আটক আসামীসহ দুই মাদক কারবারি নিহত। ওই ঘটনায় সহকারী পুলিশ সুপারসহ ৪ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। উপজেলার হোয়াইক্যং সাতঘরিয়াপাড়া সংলগ্ন পাহাড়ী এলাকায় এই ঘটনাটি সংঘটিত হয়। ঘটনাস্থল থেকে ১টি শুটার গান,দেশীয় তৈরী ৫টি এলজি, ৩৬ রাউন্ড গুলি এবং ৫ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করে পুলিশ।
নিহত মাদক কারবারীরা হচ্ছে,টেকনাফ উপজেলার অন্তর্গত হোয়াইক্যং ইউনিয়ন কান্জর পাড়ার সামশুল আলমের পুত্র জিয়াবুল হক প্রকাশ বাবুল (৩০) ও বাহারছড়া ইউনিয়নের শীলখালীর কেফায়েত উল্লাহর পুত্র আজিম উল্লাহ (৪৬)। আহত পুলিশ সদস্যরা হচ্ছে, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার উখিয়া-টেকনাফ সার্কেল নিহাদ আদনান তাইয়ান,উপ-পরিদর্শক সাব্বির আহমেদ, কনেস্টবল রাইসুল ইসলাম আসাদ ও শুক্কুর।
সত্যতা নিশ্চিত করে টেকনাফ মডেল থানার (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ জানান,গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশের একটি দল ১৬ অক্টোবর বুধবার বিকালে টেকনাফ হ্নীলা বাজার এলাকা থেকে বেশ কয়েকটি মামলার পলাতক আসামী অস্ত্রধারী মাদক কারবারী জিয়াবুল হক প্রকাশ বাবুইল্যা গ্রেফতার করে। এরপর তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ১৭ অক্টোবর ভোরে দিকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার উখিয়া-টেকনাফ উপজেলায় দায়িত্বরত সার্কেল নিহাদ আদনান তাইয়ান এর নেতৃত্বে টেকনাফ মডেল থানার পুলিশের একটি দল হোয়াইক্যং ইউনিয়ন সাতঘরিয়াপাড়া সংলগ্ন গহীন পাহাড়ী আস্তানায় অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধার করতে গেলে মাদক কারবারে জড়িত অপরাধীরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আটক আসামীর সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ী গুলিবর্ষণ শুরু করে এবং আটক আসামীদের ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করলে আত্মরক্ষার্থে পুলিশ সদস্যরাও পাল্টা গুলি চালায়। উভয়পক্ষের গোলাগুলির এক পর্যায়ে উখিয়া-টেকনাফের সার্কেল নিহাদ আদনান তাইয়ানসহ পুলিশের ৪ সদস্য গুরুতর আহত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসার পর ঘটনাস্থলে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আটক বাবুল ও তার সহযোগী আজিম উল্লাহকে পড়ে থাকতে দেখা যায়। এরপর পুলিশ সদস্যরা তাদের উদ্ধার কর টেকনাফ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার হাসপাতালে প্রেরণ করে। সেখানে পৌছার পর দায়িত্বরত ডাক্তার তাদের ২ জনকে মৃত ঘোষনা করে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top
alsancak escort bornova escort gaziemir escort izmir escort buca escort karsiyaka escort cesme escort ucyol escort gaziemir escort mavisehir escort buca escort izmir escort alsancak escort manisa escort buca escort buca escort bornova escort gaziemir escort alsancak escort karsiyaka escort bornova escort gaziemir escort buca escort porno