শিরোনামঃ
জয়নাল/আরাফাত সিন্ডিকেট গিলে ফেলেছে ইনানীর শত একর পাহাড়লামায় মৎস্য প্রকল্প থেকে ৫ লাখ টাকার মাছ লুটের অভিযোগটেকনাফ পুলিশ-বিজিবি পৃথক অভিযানে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২জন নিহতলামায় এক নারীকে জবাই করে খুনদু’দিন বন্ধ থাকবে কলাতলীর মেরিন ড্রাইভের সংযোগ সড়কচট্টগ্রামে আগুনে পুড়ল দুই মার্কেটের ১৩০ দোকান“ফরিদ আহমেদ চৌধুরী ছিলেন একজন গুনি ও জাতীয় মাপের শিল্পী”টেকনাফে দুইদিনে পৃথক বন্দুকযুদ্ধে দুই রোহিঙ্গাসহ ৪ মাদককারবারি নিহত, ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারকক্সবাজারে জাতির পিতার কনিষ্ঠপুত্র শেখ রাসেলের ৫৫তম জন্মবার্ষিকী পালিতটেকনাফে হোয়াইক্যংএর বাবুইল্যা ও বাহারছড়ার আজম উল্লাহ বন্দুকযুদ্ধে নিহত : সার্কেলসহ ৪ পুলিশ আহতমহেশখালীর ২’শ পরিবার বিদ্যুতে আলোকিতটেকনাফে নোহা গাড়ি আগুনে পুড়ে ছাঁইনাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুমে প্রতিদ্বন্দ্বী দুই ইউপি সদস্যের সংঘর্ষে নিহত ১,আহত ৫টোকাইদের জোটে’ পরিণত হয়েছে ২০ দলীয় জোট!মেরিন ড্রাইভ সড়কের কলাতলীতে অবৈধ দেয়াল ভেঙ্গে দিয়েছে প্রশাসন
porno izle izmir escort sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam inönü üniversitesi taban puanları

পেকুয়া বাজার দোকান মালিক সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন

received_551823648898932.jpeg

পেকুয়া প্রতিনিধি::পেকুয়ার প্রধান বানিজ্যিক কেন্দ্র আলহাজ্ব কবির আহমদ চৌধুরী বাজার দোকান মালিক সমবায় সমিতির ত্রি-বার্ষিক সাধারণ সভা ও চতুর্থ ব্যবস্থপনা কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। ¬¬

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় সদর ইউনিয়নের পেকুয়া বাজারস্থ সমবায় ঋণদান কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু হয়। রোদ বৃষ্টি উপেক্ষা করে ভোটারদের অংশ গ্রহনের মধ্যদিয়ে বিকেল ৪টায় ভোট গ্রহণ শেষ হয়।

নির্বাচনে পেকুয়া সদর ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য মোঃ ইসমাঈল সিকদার তার নিকটতম প্রার্থী শিমুল করিমকে হারিয়ে সভাপতি, নুরুল আবছার তার নিকটতম প্রার্থী মাওলানা আবদু রহিম ও মোঃ আজমগীরকে হারিয়ে সহসভাপতি ও সাংবাদিক শাখাওয়াজ হোসেন সুজন তার নিকটতম প্রার্থী রেজাউল করিম রেজা ও শাহেদুল ইসলাম শাহেদকে হারিয়ে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়াও নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা পরবর্তি প্রতিদ্ব›িদ্ধ প্রার্থী না থাকায় বিনাপ্রতিদ্ব›িদ্ধতায় ৩জন ডিরেক্টর নির্বাচিত হয়েছেন। তারা হলেন, মোরশেদুল হক, ইব্রাহীম খলিল ও আরাফাদুল ইসলাম।

এদিকে সকাল ১০টায় সমবায় কমিউনিটি সেন্টার হল রুমে দোকান মালিক সমিতির সাবেক সভাপতি আলহাজ¦ নাজেম উদ্দিন নুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অসীম বিশ্বাসের পরিচালনায় সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সাধারণ সভায় অংশগ্রহণকারী প্রার্থী ও উপস্থিত অতিথিরা বক্তব্য রেখেছেন।

নির্বাচন চলাকালীন সময়ে উপস্থিত ছিলেন, নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সভাপতি উপজেলা সমবায় অফিসার ওসমান গনি, নবাগত সমবায় কর্মকর্তা কামাল পাশা, নির্বাচন কমিশন মোঃ মাঈন উদ্দিন, নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য ডাঃ জাফর আলম, পেকুয়া ঋণদান সমবায় সমিতির সভাপতি নাছির উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ তারেক ছিদ্দিকী, পেকুয়া বাজার ব্যাবসায়ী সমিতির সভাপতি আকতার আহমদ ও সাধারণ সম্পাদক মিনহাজ উদ্দিন। এদিকে শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করতে পেরে সকলের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন নির্বাচন কমিশন। বিজয়ী প্রার্থীরাও তাঁদের দায়িত্ব পালনে সকলের সহযোগীতা কামনা করেছেন।

ঐতিহ্যবাহী পেকুয়া আলহাজ্ব কবির আহমদ চৌধুরী বাজার দোকান মালিক সমিতির নির্বাচনে বিজয়ী প্রার্থীদের সাংবাদিকদের সংগঠন রিপোর্টার্স ইউনিটি পেকুয়া ও সাধারণ মানুষ অভিনন্দন জানিয়েছেন।
————————-
পেকুয়ায় বসতবাড়িতে চুরির ঘটনায় মালামাল উদ্ধার ও আসামীকে আটক না করায় ক্ষোভ
পেকুয়া প্রতিনিধি

পেকুয়ায় বসতবাড়িতে চুরির ঘটনায় ১০দিন পার হলেও মালামাল উদ্ধার না হওয়া ও অজ্ঞাতনামা আসামীদের আটক না করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মামলার বাদি সেলিনা আক্তার। সেলিনা আক্তার পেকুয়া উপজেলার সদর ইউনিয়নের মিয়া পাড়া এলাকার জসিম উদ্দিনের স্ত্রী।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর মিয়া পাড়াস্থ বসতবাড়ি থেকে প্রায় সাড়ে ৪ লক্ষাধিক টাকার মালামাল চুরি হয়। পেকয়া থানার ওসি মামলাটি তদন্তপূর্বক গত ৩ অক্টোবর রেকর্ড করে। অভিযুক্ত একই এলাকার মৃত শওকতের পুত্র ছরওয়ার আলম নামের এক যুবককে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন।

মামলার বাদি সেলিনা আক্তার বলেন, আমার স্বামী পুলিশ কর্মকর্তা। দায়িত্বের কারণে এলাকার বাইরে নিজ কর্মস্থলে থাকে। ঘটনার দিন সকালে আমার শিশু সন্তান ছরওয়ার আলম ও একই এলাকার মোঃ সেলিমের পুত্র তওহীদুল ইসলামকে বাড়ির পাশে পাশে দেখেছেন। বিকেলের দিকেও তারা সংঘবদ্ধ হয়ে বাড়ির আশেপাশে ছিলেন। বিকেল ৪টার দিকে আমি মেয়েকে ঘুম পাড়িয়ে সামনের রুমে রুমে বসে মোবাইল নাড়াছাড়া করছিলাম। ওই সুযোগে ছওয়ার ও তওহীদুলসহ আরো কয়েকজন ছাদের উপর দিয়ে ভিতরে ডুকে মোবাইল, টাকা ও স্বর্ণালংকারসহ সাড়ে ৪লাখ টাকার মালামাল নিয়ে যায়। উপরে আওয়াজ শুনতে পেয়ে গিয়ে দেখি তারা দুইজনসহ আরো কয়েকজন দেয়াল টপকে পালিয়ে যায়। তাৎক্ষনিকভাবে থানাকে দুইজনের কথা অবগত করি। থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে ছওয়ারকে আটক করে। সেই সময় পুলিশ বলে আটককৃত ১জনকে দিয়ে মামলার এজাহার করার জন্য। বাকি ১জনকে পুলিশ আটক করে মামলায় আসামী করবে। কিন্তু পুলিশ এখন পর্যন্ত মালামাল উদ্ধার ও করেনি এবং তওহীদুল ইসলামকে আটক করেনি। তওহীদুল ইসলাম প্রতিদিন হুমকি দিচ্ছে তাকে আটকে সহযোগীতা করলে আমার মেয়েকে অপহরণ করে হত্যা করবে। আমি প্রতিদিন ভয়ে বাড়িতে বসবাস করি। তাকে দ্রুত আটকের দাবী জানাচ্ছি।

এবিষয়ে জানতে চাইলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সুমন সরকার বলেন, আমি পুজার ছুটিতে ছিলাম। তবে এর আগে মামলার ব্যাপারে যতেষ্ঠ তদন্ত করা হয়েছে। দুই একদিনের ভিতর আরো কিছু আপডেট দিতে পারবো।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top
alsancak escort bornova escort gaziemir escort izmir escort buca escort karsiyaka escort cesme escort ucyol escort gaziemir escort mavisehir escort buca escort izmir escort alsancak escort manisa escort buca escort buca escort bornova escort gaziemir escort alsancak escort karsiyaka escort bornova escort gaziemir escort buca escort porno