শিরোনামঃ
জয়নাল/আরাফাত সিন্ডিকেট গিলে ফেলেছে ইনানীর শত একর পাহাড়লামায় মৎস্য প্রকল্প থেকে ৫ লাখ টাকার মাছ লুটের অভিযোগটেকনাফ পুলিশ-বিজিবি পৃথক অভিযানে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২জন নিহতলামায় এক নারীকে জবাই করে খুনদু’দিন বন্ধ থাকবে কলাতলীর মেরিন ড্রাইভের সংযোগ সড়কচট্টগ্রামে আগুনে পুড়ল দুই মার্কেটের ১৩০ দোকান“ফরিদ আহমেদ চৌধুরী ছিলেন একজন গুনি ও জাতীয় মাপের শিল্পী”টেকনাফে দুইদিনে পৃথক বন্দুকযুদ্ধে দুই রোহিঙ্গাসহ ৪ মাদককারবারি নিহত, ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারকক্সবাজারে জাতির পিতার কনিষ্ঠপুত্র শেখ রাসেলের ৫৫তম জন্মবার্ষিকী পালিতটেকনাফে হোয়াইক্যংএর বাবুইল্যা ও বাহারছড়ার আজম উল্লাহ বন্দুকযুদ্ধে নিহত : সার্কেলসহ ৪ পুলিশ আহতমহেশখালীর ২’শ পরিবার বিদ্যুতে আলোকিতটেকনাফে নোহা গাড়ি আগুনে পুড়ে ছাঁইনাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুমে প্রতিদ্বন্দ্বী দুই ইউপি সদস্যের সংঘর্ষে নিহত ১,আহত ৫টোকাইদের জোটে’ পরিণত হয়েছে ২০ দলীয় জোট!মেরিন ড্রাইভ সড়কের কলাতলীতে অবৈধ দেয়াল ভেঙ্গে দিয়েছে প্রশাসন
porno izle izmir escort sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam inönü üniversitesi taban puanları

পেকুয়ায় তিনমাসে ৪০ ম্যালেরিয়া রোগী,আতংকে এলাকাবাসী

received_1118905288498051.jpeg

পেকুয়া প্রতিনিধি::কক্সবাজারের পেকুয়ায় আশঙ্কাজনক হারে বেড়েছে ম্যালেরিয়া রোগের প্রকোপ। সরকারি হিসাবে গত তিনমাসে ৪০ রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। চলতি মাসে ১৫জন রোগীকে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে। সবচেয়ে বেশি প্রকোপ দেখা দিয়েছে টইটং, বারবাকিয়া, শিলখালী ও সদর ইউনিয়নে। রোগের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় আতংক দেখা দিয়েছে এলাকাবাসীর মাঝে। এমন তথ্য নিশ্চিত করেছেন ম্যালেরিয়া নিয়ে কাজ করা এনজিও সংস্থা একলাবের (ব্রাক) ম্যানেজার জাহেদুল ইসলাম।

বেসরকারি সংস্থা ব্র্যাক এর তথ্য সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার টইটং, বারবাকিয়া আর শিলখালী ইউনিয়ন পাহাড়ি এলাকা হওয়ায় এখানে রোগের প্রকোপ একটু বেশি। বর্তমান সময়টাতে ম্যালেরিয়া রোগের প্রকোপ সবচেয়ে বেশি। জুন মাসে ১১জন, জুলাই মাসে ১৪জন আর বর্তমান আগস্ট মাসে ১৫জন ম্যালেরিয়া রোগীকে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়েছে। তবে ২০১১ সালের পর থেকে ম্যালেরিয়ায় কোন রোগী মারা যায়নি। যার কারণে ম্যালেরিয়া রোগ নিয়ন্ত্রনের বাইরে যায়নি।

ম্যালেরিয়া নির্মূল কার্যক্রম লক্ষ্য সম্পর্কে স্বাস্থ্য অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, সরকারের লক্ষ্য অনুসারে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসিডিজি) অর্জন করতে হলে ২০৩০ সালের মধ্যেই ম্যালেরিয়া দেশ থেকে নির্মূল করা হবে। এছাড়া ২০২১ সালের মধ্যে ঝুঁকিপূর্ণ ১৩ জেলায় বার্ষিক সংক্রমণের হার ০.৪৬ এ নামিয়ে আনা এবং বাকি ৫১ জেলায় সম্পূর্নরুপে ম্যালেরিয়ামুক্ত করা। তাছাড়া প্লাজমোডিয়াম ফ্যালসিপেরাম জীবাণুর আবির্ভাব প্রতিরোধ করা।

একলাবের ম্যানেজার জাহেদুল ইসলাম বলেন, আমরা দীর্ঘবছর ধরে ম্যালেরিয়া নিয়ে কাজ করছি। রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিচ্ছি। গত তিনমাসে ৪০ রোগীর চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়েছে। বর্তমানেও চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও পেকুয়া স্বাস্থ কমপ্লেক্সে কয়েকজন রোগীর চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে। সব রোগীর চিকিৎসা ও ওষুধের খরচ সরকারের পক্ষ থেকে বহন করা হয়। এখন একটু বেশি হলেও সামনে দিনগুলোতে রোগের প্রকোপ কমে আসবে। আর একলাবের পক্ষ থেকে পেকুয়া উপজেলার প্রতিটি বাড়িতে কয়েকটা করে কীটনাশকযুক্ত মশারি রয়েছে। তা না হলে রোগীর সংখ্যা আরো বাড়তো।

পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক কর্মকর্তা ডাক্তার মুজিবুর রহমান বলেন, আসলে পেকুয়ায় ম্যালেরিয়া রোগের তেমন প্রকোপ নাই। পেকুয়ার অসংখ্য মানুষ দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় গাছ কাটতে যায়। সেখান থেকে রোগের প্রকোপ নিয়ে তারা পেকুয়ায় আসে। এমনিতে বর্ষাকালে ম্যালেরিয়া রোগীর সংখ্যা একটু বেড়ে যায়। বর্তমানে পেকুয়া হাসপাতালে কয়েকজন ম্যালেরিয়া রোগীর চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Top
alsancak escort bornova escort gaziemir escort izmir escort buca escort karsiyaka escort cesme escort ucyol escort gaziemir escort mavisehir escort buca escort izmir escort alsancak escort manisa escort buca escort buca escort bornova escort gaziemir escort alsancak escort karsiyaka escort bornova escort gaziemir escort buca escort porno